রেস্টুরেন্টের খাবার

indian restaurant

১. শুক্রবার রাত্রে স্টকহোমের রেস্টুরেন্টগুলাতে সেইরকম ভীড় থাকে। কিছু উপরি ট্যাকা পয়সা কামানের ধান্দায় সেরকমই কোন একটা রেস্টুরেন্টে কাম করছিলাম এক মাস। মালিক জনৈক সিলেটি আঙ্কেল। তিনি নিজেই কুক-ওয়েটার-ক্যাশিয়ার। আর আমি শুধু কিচেনে কাজ করি কারণ আমি সুইডিশ ভাষা না জানায় অর্ডার নিতে পারি না, বিলও নিতে পারি না। শুক্রবার রাতগুলাতে তাই উনার মাথা বিশেষ রকমের গরম থাকে কাস্টমারের প্রেশারে।

কোন এক শুক্রবার রাত্রে কাস্টমারের চাপে হিমশিম খাইতেছেন তিনি। আমারে তিনটা নানরুটি সহ একটা প্লেট ধরায়া বললেন, তিন নম্বর টেবিলোতো দিয়া আসবায়।
কিচেন থিকা যাওনের পথে বাম পাশে বাথরুম। সামনে একটু ভেজা ভেজা থাকায় ধপাস কইরা পইড়া গেলাম নান রুটি সহ। তাড়াতাড়ি বাথরুমের দরজার সামনে পইড়া যাওয়া হালকা ভিজা ভিজা নানরুটি তুইলা নিয়া কিচেনে ফিরা গিয়া কইলাম, আঙ্কেল, আরো তিনটা নানরুটি লাগবো।
উনি মহা চেইত্তা গিয়া কইলেন, খ্যানে? ইগুলার খিতা অইছে? ফ্রবলেম খিতা?
আমি কইলাম, আমি বাথরুমের সামনে পইড়া গেছিলাম, এইগুলাও পড়ছে।
তিনি আমার দিকে চোখ বড় বড় কইরা কিছুক্ষণ তাকায়া থাইকা জিগাইলেন, খেউ দেখছে নি রে বা?
আমি বললাম, জ্বী না। কেউ দেখে নাই।
উনি নানরুটি গুলার ভিজা জায়গায় দ্রুত কিছু মাখন মাখায়া দিয়া কইলেন, ছুপছাপ খাস্টমারর টেবিলোতো দিয়া আস। এতকিছু দেখলে ব্যবসা খরা যাইতো নায়।

২. অন্য আরেক শুক্রবার। সেইদিনও তিনি বিশাল গরম। একসাথে ছয়টা পার্সেলের অর্ডার নিলেন তিনি টেলিফোনে, যারা বিশ মিনিটের মাঝে রেস্টুরেন্টে এসে খাবার নিয়া যাবে। আর সাথে রেস্টুরেন্টে বসা কাস্টমাররা তো আছেই।
উনি মহানন্দে উনার ছয়টা চুলায় একসাথে রান্না করতে লাগলেন। আর আমি পার্সেলের বক্সগুলা সাজাইতে থাকলাম। উনি রান্নায় ব্যাপক পারদর্শী। চউক্ষের পলকে সবগুলান রান্না শেষ কইরা বক্সগুলায় খাবার রাখতে লাগলেন একটার পর একটা।
তারপর আমারে কইলেন, এইবার খাবার গুলা নিয়া আস। আমি বুঝলাম না উনি কি কইতেছেন। কারণ, ছয়টা রান্নাই তো শেষ। এখন আবার কোন খাবার আনুম?
আমি কইলাম, আঙ্কেল, কুন খাবার আনুম?
উনি চেইত্তা ফায়ার হয়া কইলেন, আরে বাবা, খাবার আনতে বলছি তোমারে।
আমি আরো বেশি কনফিউজড হয়া কইলাম, আঙ্কেল, খাবার তো বক্সে রাখা অলরেডি!

উনার স্ক্রু আগেই ঢিলা ছিল, এইবার উনার মাথার তারও ছিঁড়া গেল পুরাই। উনি সিলেটি ভাষায় গজ গজ করতে করতে শেলফ থিকা পার্সেলগুলার কাভার (ঢাকনা) আইনা আমার চোখের সামনে ধইরা বিকট চিৎকার দিয়া কইলেন, খাবার…. খাবার…. খাবার….

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s