আপনে একটা মাইনসের জাত না

আদুরী
আদুরি

আপনে শিক্ষিত হইতে পারেন, বহুত ডিগ্রিওয়ালা হইতে পারেন, আপনের বহুত পাওয়ার/সাকসেস/ট্যাকা থাকতে পারে, কিন্তু আপনে একটা মাইনসের জাত না, যদি আপনের নিজের জাতের লোকগুলারে যথাযোগ্য সম্মান দিতে না পারেন। জাস্ট বিকজ সে আপনার চেয়ে গরীব একটা ঘরে জন্মাইছে, সেইটা আপনারে তার গায়ে হাত তুলার অধিকার দেয় নাই। মানুষ হিসাবে তার অধিকার গুলা কাইড়া নেওনের অধিকার দেয় নাই।  তারে আপনে চড় থাপ্পড় মারেন, আপনের বউ সেও তো মারেই সাথে বোনাস হিসাবে খুন্তি দিয়া ছ্যাঁকা দেয়, বাথরুমে/কিচেনে ঘুমাইতে দেন রাত দুইটা থেকে ভোর চারটা পর্যন্ত, ছিড়া একটা ত্যানার মত জামা পরায়া রাখেন, ছুটি নামের কোন বস্তুর অস্তিত্ব তার জানা নাই। আপনারা কক্সবাজারে গেলে তারে বাসায় তালা মাইরা রাইখা যান।

আর মারতে মারতে যখন সে জ্ঞান হারায়া ফেলে তখন আপনেরা তারে ডাস্টবিনে ফালায়া দিয়া আসেন। ঢাকা বলেন, স্টকহোম বলেন আর বৈরুত বলেন, সারা দুনিয়ার সবখানেই একই কাহিনী। বাংলাদেশেরগুলা আরেকটা বেশিই ইতর, কারণ তারা এই ক্রাইমটা করে বাচ্চাদের উপর। পিচ্চি পিচ্চি পুলাপানগুলারে খাডায়।

শেয়ার করা খবরটা (http://www.banglanews24.com/beta/fullnews/bn/292297.html) হাইলাইট হইছে কারণ সেইটা হইছে পৃথিবীর উন্নততম একটা দেশে, যেইখানে হিউম্যান রাইট থাকুক আর না থাকুক, তারা অন্তত হিউম্যান রাইট নিয়া ফালাফালি করে। আল্লাহ জানে লেবাননে কি হইতেছে। বিদেশে থাকা মানেই ব্যাপক মৌজ মাস্তিতে থাকা আর পার্টি করা বইলাই সবার ধারণা। পেছনের গল্পটা সবাই জানে না।

আর বাংলাদেশের কথা আর নতুন কইরা কওয়ার কিছু নাই। শুধু মাত্র ঢাকাতেই আমি মিনিমাম তিনটা কেইস দেখাইতে পারব, যেখানে গৃহপরিচারিকাকে
(1) খুন করে ছাদ থেকে ফেলা দেয়া হইছে (গৃহকর্ত্রী পুলিশের এক বড় কর্তার স্ত্রী: https://www.youtube.com/watch?v=7mHyb-GA8K0)
(2) দিনের পর দিন অত্যাচার করা হইছে, গৃহকর্ত্রী তার পেশাবও খাওয়াইছেন (আওয়ামীলীগ নেতার স্ত্রী: http://www.rtnn.net/newsdetail/detail/1/3/57642#.U34S7XLVPlc)
(3) মারতে মারতে মৃত মনে করে ডাস্টবিনে ফেলে দেয়া হইছে (আদুরীর ঘটনা: http://www.priyo.com/2013/09/26/33090.html)।

আরো অনেকগুলা হাইলাইট হওয়া কেইস আছে, যেইগুলা আমার গোল্ডফিশ মেমোরি থিকা মুইছা গেছে। আর আরো কতশত কেইস হাইলাইটই হয় নাই কোন দিন।

একটা ব্যাপার খেয়াল রাইখেন, সে যেমন দুনিয়াতে আছে, আপনিও আছেন, তারে দুনিয়াতে একটা রোল করার জন্য পাঠানো হইছে, আপনারেও কিন্তু তাই। আর আপনে যদি মাইনসের জাত না হয়া থাকেন, তাইলে তো আর কথাই নাই।

মিজাজ বহুত খারাপ হয়া গেছে লেখতে লেখতে। বন্ধু খালিদের করা একটা জোক্স দিয়া শেষ করি।

ট্রেন ডাকাতি হচ্ছে ….

ডাকাতঃ এই তর নাম কি ?
১ম যাত্রীঃ মফিজ। ডাকাতঃ যা আছে সব দিয়া দে ।
মফিজ সব কিছু দিয়ে দিল ।
ডাকাতঃ এই আপনার নাম কি ?
২য় যাত্রীঃ জুলেখা ।
ডাকাতটি আবেগআপ্লুত হয়ে বললঃ জুলেখা আমার মায়ের নাম ছিল । আপনি সসস্মানে মুক্ত ।
ডাকাতঃ এই তর নাম কি ?
.
.
.
.
.
৩য় যাত্রীঃ কাশেম। লোকে আদর করে জুলেখা বলে ডাকে।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s