থ্রি ইডিয়টসের রেঞ্চো হতে পারত একজন মিডিওকার রাজু রাস্তোগি

থ্রি ইডিয়টস মুভিটা আমার দেখা অন্যতম একটা সেরা মুভি। এই একটা মুভিই জীবনে সবচেয়ে বেশিবার দেখছি, প্রায় দশবারের বেশি।

থ্রি ইডিয়টস মুভিতে আমির খানের চরিত্রটাকে দেখা যায়, ডিগ্রি নয়, জ্ঞানের পেছনে ছুটতে, শেষ পর্যন্ত সে ডিগ্রির বিনিময়ে নয়, জ্ঞানের বিনিময়েই সাকসেসফুল হয়। তাই সে একটা বস ক্যারেকটার।
ব্যাপারটাকে একটু ঘুরায়া চিন্তা করেন। আমির খান জানত যে সে ডিগ্রি পাবে না। সে আরেকজনের প্রক্সি দিচ্ছে। সুতরাং চার বছরের পড়াশোনা থেকে সে যতটুকু জ্ঞান অর্জন করতে পারবে, সেটাই তার পুঁজি। তাই তার রেজাল্ট বা কনভেনশনাল ডিগ্রির চেয়ে জ্ঞানার্জনের দিকেই বেশি মনোযোগ ছিল। ফলশ্রুতিতে সে ই টপ।
ডিগ্রি যেহেতু সে পাবেই না, সে ডিগ্রির পেছনে ছোটা বন্ধ করে দেয়। অনেকটা বাচ্চারা যেমন চাঁদ ধরতে হাত বাড়ায়, কিন্তু একটু বড় হবার পর যখন বুঝতে পারে যে চাঁদ ধরা পসিবল না, তখন হাল ছেড়ে দিয়ে অন্য কাজে মন দেয়।

এবার একটু অন্য ডাইমেনশনে চিন্তা করি। আমির খানের বাবা যদি রাচ্ছোড়দাস দের বাড়িতে মালি হওয়া স্বত্বেও পেটে ভাতে খেয়ে ছেলেকে কষ্ট করে লেখাপড়া করিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠাতেন ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে, তখন আমির খান তথা র্যাঞ্চো তথা ফুঙসুক ওয়াড়ুর মাথায় একটা অদৃশ্য প্রেশার থাকত যে তাকে ভাল করতে হবে, বাবা এত কষ্ট করে তাকে পড়িয়ে এতদূর এনেছেন, সুতরাং তাকে ভাল করে পড়তে হবে, ভাল রেজাল্ট করে ভাল ডিগ্রি নিয়ে ভাল চাকরি করে সংসারের দু:খ দুর্দশা দূর করতে হবে, তখন কিন্তু সে জ্ঞানার্জনের চেয়ে ডিগ্রি অর্জনের দিকেই মন দিত। তখন সে সিম্পলি আরেকজন রাজু রাস্তোগি তে পরিণত হত।
জ্ঞানার্জনের দিকে ইচ্ছা থাকলেও তাকে ডিগ্রি অর্জনের ব্যাপারটাকে প্রায়োরিটি লিস্টে ওপরের দিকে রাখতে হত।

#হাগুথটস #mindshits

3idiot-33-12x9

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s